সৈয়দ আবু ইউসুফ এতিমখানা এবং মাদ্রাসা

ঝাউহাটি, মধুখালি, ফরিদপুর

দুনিয়া এবং আখিরাতের ব্যাপারে চিন্তা করো। ওরা তোমাকে এতিমদের ব্যাপারে জিজ্ঞেস করে। বলে দাও, “তাদের জন্য সুব্যবস্থা করাটা তোমাদের জন্যই উত্তম। যদি তাদের সাথে একসাথে থাকো, তাহলে তারা তোমাদের ভাইবোন। আল্লাহ জানেন কে অনিষ্টকারী, আর কে উপকারী। যদি আল্লাহ ইচ্ছা করতেন, তাহলে তোমাদের অবস্থা কঠিন করে দিতে পারতেন। নিঃসন্দেহে তিনি সমস্ত ক্ষমতা এবং কর্তৃত্বের অধিকারী, পরম প্রজ্ঞাবান।”

[আল-বাক্বারাহ ২২০]

স্বাগতম

আমাদের কথা

ফরিদপুর জেলার, মধুখালি উপজেলা হতে মাত্র ৩.৬৫ কিলোমিটার পূর্বে, ন্যাশনাল হাইওয়ে এর উত্তর পার্শ্বে, (গুগল ম্যাপে দেখুন) ১,৫৮,১৯৫ (এক লক্ষ আটান্ন হাজার এক শত পচানব্বই) বর্গফুট নিজস্ব জমির উপর ঝাউহাটি গ্রামে সৈয়দ আবু ইউসুফ এতিমখানা এবং মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠিত।

এখানে উল্লেখ্য যে এই স্থান নির্বাচনের একটি বিশেষ কারন রয়েছে । ঝাউহাটি গ্রাম যেকোন শিক্ষা ব্যবস্থা হতে বঞ্চিত। যার ফলশ্রুতিতে আমরা একটি নাগারক দ্বায়িত্ববোধ থেকে এই মাদ্রাসা ও এতিমখানা ও মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠিত।

ছোট ছোট কোমলমতি এতিম শিশুদের একটি সুনিশ্চিত এবং কর্মদক্ষ সম্পন্ন ভবিষ্যৎ গড়ে তোলার লক্ষে ইসলামিক আদর্শে আদর্শিত করে জীবনে সুপ্রতিষ্ঠিত করাই সৈয়দ আবু ইউসুফ এতিমখানা এবং মাদ্রাসার লক্ষ।

আমাদের লক্ষ শুধুই ইসলামিক শিক্ষা নয়। পাশাপাশি দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলার স্বার্থে যুগপোযোগী আধুনিক শিক্ষা ব্যবস্থা, যেমন কম্পিউটার শিক্ষা, হার্ডওয়্যার ও টেকনিক্যাল শিক্ষা, রপ্তানি পোষাকে এর বিভিন্ন প্রক্রিয়াকরন এর শিক্ষা, কৃষি শিক্ষা এবং বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে মেধানুযায়ী বিদেশে উচ্চ শিক্ষার জন্য  প্রেরন সহ নানাবিধ কর্মসূচি ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা হিসেবে গ্রহন করেছে।

কিন্তু এই পরিকল্পনা একার পক্ষে একক ভাবে করা অনেকটাই কষ্টসাধ্য এবং কিছু ক্ষেত্রে প্রায় দুঃসাধ্য। যার পরিপ্রেক্ষিতে সকলের সহযোগীতার আশায় একটি ক্ষুদ্র প্রয়াস আমাদের এই সৈয়দ আবু ইউসুফ এতিমখানা এবং মাদ্রাসা ।

আপনাদের একটি স্বাচ্ছন্দ্য এবং উদার অনুদান বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ এর শত থেকে হাজার কোমলমতি এতিম শিশুদের একটি সুসংগঠিত এবং নিশ্চিত স্থায়ী জীবন ব্যবস্থা গড়তে সক্ষম যা আপনার দুনিয়া এবং আখেরাতের সম্পদ হিসেবে থেকে যাবে।

আপনাদের সকলের সহযোগীতার হাত আমাদের একান্ত কাম্য..

পরিকল্পনা /

ভবিষ্যৎ

1.

একটি দেশের উন্নতির জন্য সবচেয়ে জরুরি সুশিক্ষা। সুশিক্ষার তাগিদে, ইসলামিক শিক্ষায় দীক্ষিত একটি মানুষ একটি উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ গড়তে সম্ভব। তারই একটি ক্ষুদ্র প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে, সুবিধা বঞ্চিত এতিম শিশুদের নিয়ে সৈয়দ আবু ইউসুফ এতিমখানা এবং মাদ্রাসা যাত্রা শুরু।

কিছু মুহূর্ত - কিছু চেষ্টা

আমরা অবিরত আমাদের ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা দিয়ে এই সুবিধা বঞ্চিত এতিম শিশুদের ইসলামিক দীক্ষা ও ভরন পোষনের ব্যবস্থ্যা করে যাচ্ছি। তার কিছু চিত্র এখানে তুলে ধরা হল।

সঠিক নিয়মে কোরআন শিক্ষা, নিয়মিত চর্চা, দৈনিক শৃঙ্খলার সাথে শ্রেনী কক্ষে পাঠ প্রদান ও গ্রহন সহ বিধি কার্যকলাপ এর চিত্র।

আমাদের
ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা

একটি সুসংহত জাতি গঠনে স্বাবলম্বী জনগোষ্ঠী গড়ে তোলা জরুরী। সেই জনগোষ্ঠী গড়ে তোলার তাগিদে আমরা সৈয়দ আবু ইউসুফ এতিমখানা এবং মাদ্রাসার পরিধিতে একটি আধুনিক ও ফলপ্রসু কর্মপরিকল্পনা হাতে নিয়েছি যা অন্যান্য সকল মাদ্রাসা ও এতিমখানা থেকে ব্যতিক্রম এবং অনুকরনীয় যোগ্য। সেই সব পরিকল্পনার মূল কিছু অংশ এখানে আপনাদের জ্ঞাতার্থে উল্লেখ করা হল

বিশেষ ইংরেজী ক্যাম্পাস

স্পোকেন ইংরেজী, এক্সিকিউটিভ ইংরেজী, আই ই এল টি এস সহ প্রভৃতি প্রশিক্ষন।

রপ্তানি পোষাক প্রক্রিয়াকরন

গার্মেন্টস শিল্পের নিট, ওভেন, ডেনিম, স্টিচিং সিইউইং প্রভৃতি জটিল প্রশিক্ষন প্রদান।

নিজস্ব কম্পিউটার কক্ষ

অফিস এ্যাপ্লিকেশন, ইন্টারনেট, গ্রাফিক্স, নেটওয়ার্ক হার্ডওয়্যার ট্রাবলশুর্টিং প্রভৃতি প্রশিক্ষন প্রদান।

ইলেট্রিক এন্ড হার্ডওয়্যার

টিভি, ফ্রিজ, কম্পিউটার, ইউপিএস, ফ্যান সহ নানা প্রকার ইলেকট্রিক্যাল এন্ড হার্ডওয়্যার রিপিয়ারিং প্রশিক্ষন প্রদান।

নিজস্ব কৃষি জমি

শাক-সবজি, ফল-মূল ও প্রান্তিক চাষাবাদ পদ্ধতি এর প্রশিক্ষন প্রদান।

নিজস্ব ক্রীড়া কমপ্লেক্স

ফুটবল, ভলিবল, ব্যাডমিন্টন, ক্রিকেট সাতার প্রভৃতি এর প্রশিক্ষন প্রদান।

একটি ছোট্ট দান অনেক গুলো ছোট ছোট এতিম শিশুদের মিষ্টি হাসির কারন হতে পারে। সেই হাসি আপনার দুনিয়া এবং আখেরাতের একটি অমূল্য সম্পদ হিসেবে থেকে যাবে। যদি আপনি বা আপনারা এই মহৎ কাজে অংশ নিতে চান তাহলে আমাদের নিম্নে বর্ণিত যে কোন একটি হিসাব ব্যবস্থায় আপনার স্বচ্ছন্দ্য অবদান রাখতে পারেন

 স্বেচ্ছা দান এর হিসাব নম্বর

হিসাবের নাম –
সৈয়দ আবু ইউসুফ মাদ্রাসা
সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর – ০৪৯১২১০০-২৩৮০২৩

যাকাত দান এর হিসাব নম্বর

হিসাবের নাম –
সৈয়দ আবু ইউসুফ মাদ্রাসা
সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর – ০৪৯১২১০০-১৬৭৫০৩

বিকাশ এর হিসাব নম্বর

+৮৮ ০১৭ ১৪০১ ৮১২২

হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) বলেন –
“আমি এবং যে কেউ যদি এতিমের দ্বায়িত্ব গ্রহন করে,
সে বেহেশত গমন করবে।”